সরকারি নির্মাণকাজে ফাঁপা ইট ব্যবহার করার নির্দেশ

সম্পাদক-প্রকাশকঃ মারুফুর রহমান ফকির
সোম, 12.02.2018 - 03:07 PM
Share icon

 
সময় ডেস্ক।। সরকারি নির্মাণকাজে বিকল্প ইট হিসেবে ফাঁপা ইট ব্যবহারের জন্য প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় হতে নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। সোমবার সরকারি এক তথ্য বিবরণীতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।   এইচবিআরআই উদ্ভাবিত বিকল্প এ ইট পরিবেশ বান্ধব ও অর্থসাশ্রয়ী বিধায় প্রধানমন্ত্রী সম্প্রতি এ বিকল্প ইট সরকারি কাজে ব্যবহারের জন্য নির্দেশনা দেয়া হয়েছে বলে বিবরণীতে জানানো হয়েছে।
সূত্র জানায়, ইটভাটা থেকে মানবদেহের জন্য ক্ষতিকর কার্বন মনোঅক্সাইড নির্গত হয়। এ ধোঁয়ায় সর্দি, কাশি, শ্বাসকষ্টসহ নানা রোগে মানুষ আক্রান্ত হচ্ছে। তাছাড়া ইটভাটার কারণে কৃষিজমির ক্ষতি হচ্ছে। এ জন্য ইট নির্মাণে উর্বর মাটির ব্যবহার কমাতে ৫০ শতাংশ ফাঁপা ইট তৈরির পদ্ধতি আবিষ্কার করে এইচবিআরআই।   বিশ্বব্যাংক ও ইউএনডিপির পরিসংখ্যান অনুযায়ী, ইট প্রস্তুত খাত দেশের গ্রিনহাউস গ্যাসের সর্ববৃহৎ উৎসে পরিণত হয়েছে। ইটভাটায় বছরে ১২৭ কোটি সিএফটি মাটির প্রয়োজন হয়। প্রতিবছর ইটের চাহিদা বাড়ছেই। শতাংশের হিসাবে তা ২-৩ শতাংশ। ইটভাটা খাতে বছরে ৩ দশমিক ৫ মেট্রিক টন কয়লা এবং ১ দশমিক ৯ মেট্রিক টন জ্বালানি কাঠ ব্যবহৃত হয়, যা থেকে প্রতিবছর ৯ দশমিক ৮ মেট্রিক টন গ্রিনহাউস গ্যাস নিঃসরণ হয়ে থাকে।   প্রতিবছর বাংলাদেশে কমপক্ষে ১ হাজার ৫০০ কোটি ইটের চাহিদা রয়েছে। বেশিরভাগ ইটভাটা জ্বালানিপ্রাপ্তির সুবিধার জন্য সাধারণত বনের পাশে গড়ে উঠেছে। নতুন নতুন ইটভাটা গড়ে উঠছে ফসলি জমিতে। ফলে কৃষিজমি কমে যাচ্ছে। দেশে বর্তমানে প্রায় ৭ হাজার ইটভাটা রয়েছে।
Share icon