শেরপুরের নালিতাবাড়ীতে বিশাল সমাবেশে মতিয়া ছাড়া নৌকার দাবি

সম্পাদক-প্রকাশকঃ মারুফুর রহমান ফকির
বুধ, 28.03.2018 - 04:09 PM
Share icon
  নালিতাবাড়ি (শেরপুর) প্রতিনিধিঃ আসুন নৌকার মাঝি পাল্টাই, নৌকার মাঝি বাদশা ভাই’ শ্লোগানে শ্লোগানে হাজার হাজার মানুষের মুখরিত সমাবেশে এমন দাবী উঠেছে। অনুষ্ঠিত আজ বুধবার বিকেলে উপজেলার তারাগঞ্জ পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে এ গণসমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। মুক্তিযোদ্ধা জনতা মঞ্চের ব্যানারে আয়োজিত এ সমাবেশে প্রধান অতিথি ছিলেন কেন্দ্রিয় কৃষক লীগের সাবেক সহ-সভাপতি, জেলা আওয়ামীলীগের অন্যতম সদস্য কৃষিবিদ বদিউজ্জামান বাদশা । সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন মুক্তিযোদ্ধা এম এ বারী তালুকদার।   সমাবেশে বক্তারা বলেন, কৃষি মন্ত্রী মতিয়া চৌধুরী শেরপুর- ২(নালিতাবাড়ী-নকলা) আসনে দলের টিকেটে চারবারের সংসদ সদস্য হয়েও , দলের প্রতি সীমাহীন অবজ্ঞা দেখিয়েছেন, অসন্মান ও অসৌজন্য আচরণ করেছেন নেতা-কর্মীদের উপর। তাঁর সমর্থিত নেতা কর্মীদের দিয়ে এলাকায় ভদ্রলোকের বাসের অনুপযোগি করে তুলেছেন। ঘুষ দুর্নীতির মাধ্যমে অনুগত কয়েকজন নেতাকে কালো টাকার পাহাড় গড়ার সুযোগ দিয়েছেন। তাঁর রুঢ় আচরণে এই আসনটিতে প্রকৃত আওয়ামীলীগাররা মুখ ফিরিয়ে নিয়েছে। তাই আসনটি ধরে রাখতে নৌকার মাঝি মতিয়া চৌধুরীকে পাল্টিয়ে আগামী সংসদ নির্বাচনে কৃষিবিদ বদিউজ্জামান বাদশাকে মনোনয়ন প্রদানের দাবি জানানো হয়।   কৃষিবিদ বদিউজ্জামান বলেন, এই আসনে মতিয়া চৌধূরীর জনপ্রিয়তা এখন তলানিতে। তাকে দিয়ে এ আসন আর ধরে রাখা সম্ভব নয়। জনগণের ভেতর জোয়ার উঠেছে নৌকার মাঝি পাল্টানোর। জননেত্রী শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করতে আমি তাদের নিয়ে মাঠে কাজ করছি।মতিয়াকে উদ্দেশ্য করে বাদশা বলেন আপনার বয়স ৮৬ সুতারাং এখন আপনি কণ্যা নন।সুতারাং অগ্নিকণ্যা নয় আপনি এখন বুড়ি।     মুক্তিযোদ্ধা জনতা মঞ্চের এই সমাবেশকে কেন্দ্র করে উপজেলার নালিতাবাড়ী পরিণত হয় মিছিলের শহরে। বেলা ২ টার পর থেকেই খন্ড খন্ড মিছিল সহকারে সাধারণ মানুষ সমাবেশ স্থলে আসতে থাকে। মাঠে সাজানো হয় নৌকা সদৃশ্য বিশাল মঞ্চ। তবে মতিয়া সমর্থকরা অনেক এলাকা থেকে মিছিল আসতে বাঁধার সৃষ্টি করেছে বলে অভিযোগ করেছেন আয়োজকরা। নৌকার মাঝি পাল্টাতে এ সমাবেশকে সফল করতে গত এক মাস ধরে ঘরে ঘরে গণ সংযোগ করার উদ্যোগ নিয়েছিল আয়োজক কমিটি।   সমাবেশে অন্যান্যের মধ্যে আরও বক্তব্য রাখেন, উপজেলা আওয়ামীলীগের সাবেক যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক সরকার গোলাম ফারুক, সাংগঠনিক সম্পাদক মোক্তার হোসাইন, জেলা আওয়ামীলীগের মিনহাজ¦ উদ্দিন মৃণাল, আনোয়ার হোসেন উৎপল, শামীমআরা, মুক্তিযোদ্ধা তোফাজ্জল হোসেন, মোকসেদ আলী বেগ সহ জেলা উপজেলা বিভিন্ন পর্যায়ের নের্তৃবৃন্দ।   তবে এ সমাবেশ সম্পর্কে প্রতিক্রিয়া জানতে চাইলে উপজেলা আওয়ামীলীগের সিনিয়র সহসভাপতি আব্দুস সবুর বলেন, মতিয়া চৌধুরীর আদর্শ ও নীতি সম্পর্কে নকলা- নালিতাবাড়ীর মানুষ জানে। ঐক্যবদ্ধ আওয়ালীগের মধ্যে বিভ্রান্তি সৃষ্টির উদ্দেশ্যে বিএনপি –জামায়াত চক্রের যোগসাজশে এ সমাবেশ করা হয়েছে। তার কাছে সমাবেশে যোগ দিতে আসা লোকজনকে বাঁধা দেওয়া সম্পর্কে জানতে চাইলে, তিনি বলেন, এ ধরণের অভিযোগ ভিত্তিহীন।
Share icon