বাংলাদেশের বিপক্ষেই সুযোগটা কাজে লাগাতে চান শ্রীলঙ্কার "ডিকভেলা"

সম্পাদক-প্রকাশকঃ মারুফুর রহমান ফকির
শুক্র, 14.09.2018 - 09:16 AM
Share icon
Image

শ্রীলঙ্কার মিডল অর্ডারের মূল শক্তিই হলেন দিনেশ চান্ডিমাল। এশিয়া কাপে তিনি হতে পারতেন কোচ চন্ডিকা হাথুরুসিংহের অন্যতম বাজি। কিন্তু দুর্ভাগ্য তার। ঘরোয়া ক্রিকেটে আঙ্গুলের ইনজুরিতে পড়েছেন তিনি। যে কারণে এশিয়া কাপ মিস করতে হচ্ছে চান্ডিমালকে। তার পরিবর্তে হঠাৎই এশিয়া কাপে সুযোগ পেয়ে গেলেন নিরোশান ডিকভেলা। যিনি ঘরোয়া ক্রিকেটে ভালো ব্যাটিং করতে না পারার কারণে শুরুতে এশিয়া কাপের দলে ছিলেন না। পরে তাকে অন্তর্ভূক্ত করে নেয়া হয়।

চান্ডিমালের অভাবটাই তিনি পূরণ করতে চান। যদিও তিনি হচ্ছেন ওপেনার। এশিয়া কাপ শুরুর একদিন আগে ইএসপিএনের সঙ্গে এক সাক্ষাৎকারে নিজের ব্যাটিং স্টাইলে পরিবর্তন আনা থেকে শুরু করে আগামীতে নিজের কী লক্ষ্য সেটাই জানিয়েছেন ডিকভেলা। এশিয়া কাপের উদ্বোধনী ম্যাচেই যেহেতু বাংলাদেশের মুখোমুখি হচ্ছে তার দেশ শ্রীলঙ্কা, এ কারণে বাংলাদেশের বিপক্ষেই নিজেকে প্রমাণ করতে চান শ্রীলঙ্কার মিডল অর্ডারের এই ব্যাটসম্যান। 

২০১৪ সালে অভিষেকের পর এখনও পর্যন্ত খেলেছেন ৪১ ম্যাচ। ব্যাট করার সুযোগ পেয়েছেন ৩৯টিতে। ৩২.৪২ গড়ে রান করেছেন ১২৩২। সেঞ্চুরি ২টি। হাফ সেঞ্চুরি ৬টি। নিজের যে সামর্থ্য, সে অনুযায়ী ডিকভেলা নিজেকে খুব একটা মেলে ধরতে পারেননি।

সম্প্রতি ঘরের মাঠে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে সিরিজে দারুণ ব্যাটিং করলেও এরপর ঘরোয়া টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্টে দারুণ ব্যর্থতার পরিচয় দেন। চার ম্যাচে তার সংগ্রহ ছিল কেবল ২৪ রান। যে কারণে তাকে বাদ দেয়া হয়েছিল এশিয়া কাপের দল থেকে। চান্ডিমালের ইনজুরিই আবার তাকে প্রমাণের সুযোগ এনে দেয়।

ঘরোয়া টুর্নামেন্টটি ছিল টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটের। যে কারণে সেখানে তিনি নিজেকে মেলে ধরতে ব্যর্থ হন বলে দাবি করেন ডিকভেলা। যদিও নিজের ব্যাটিং স্টাইল পরিবর্তন করেছেন বলে জানানঅ। তিনি বলেন, ‘আমি আমার ব্যাটিং স্টাইলে পরিবর্তন করেছি। গেম প্ল্যানেও পরিবর্তন এনেছি। যদিও এটা টেস্ট এবং ওয়ানডেতে ভালো করছে। টি-টোয়েন্টিতে কাজ করছে না। এ কারণেই আমি সর্বশেষ টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্টে ভালো করতে পারিনি। আমি আমার খেলার ধরণে সম্পর্কে জানি। টি-টোয়েন্টিতে এতটা দ্রুত রান তুলতে ব্যর্থ হয়েছি।’

খুব সহসাই তাকে দল থেকে বাদ দেয়ার সমালোচনা করেন ডিকভেলা। তিনি বলেন, ‘আমি খুব ছোট-খাট কারণে দল থেকে বাদ পড়ি। এটা নিয়ে সবাই কথা বলে। কিন্তু যখন আমি একইভাবে রান করি, তখনও প্রশংসা করা উচিৎ। তবে আমি এখন নিজেকে শান্ত রাখতে চাই। ব্যাট হাতে নিজের মাথা তুলে দাঁড়াতে চাই। তাহলেই কেবল আমি আমার খেলার উন্নতি ঘটাতে পারবো এবং রান করতে পারবো। এশিয় কাপের প্রথম ম্যাচেই আমি চাই নিজের এই সামর্থ্যের প্রয়োগ ঘটাতে।

 

 

 

Share icon