শেরপুর সীমান্তে ১২০ এমএম মর্টারের গোলা ধ্বংস করলো সেনাবাহিনী  

সম্পাদক-প্রকাশকঃ মারুফুর রহমান ফকির
বৃহস্পতি, 11.03.2021 - 12:20 PM
Share icon
Image

শেরপুর প্রতিনিধিঃ শেরপুরের নালিতাবাড়ী উপজেলার সীমান্তবর্তী কালাকুমা গ্রামের একটি ফসলি জমির মাটির নিচ থেকে উদ্ধারকৃত গোলা সদৃশ্য বস্তুটি ১২০ এমএম মর্টারের গোলা ছিল। বুধবার বিকেল ৫টায় উদ্ধারকৃত গোলাটি বিস্ফোরণ ঘটিয়ে ধ্বংস করে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর বোমা ডিসপোজাল ইউনিট। 

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, গত ৯/১০দিন আগে নদীর পাড়ে পাথর তুলতে গিয়ে নালিতাবাড়ী উপজেলার কালাকুমা গ্রামের নূরুল ইসলামের ছেলে হুমায়ুন দামী ধাতব পদার্থ মনে করে বোমাটি নিজ বাড়িতে নিয়ে আসে। পরে সেটিকে বাড়ির সামনে একটি ফসলি জমিতে পুঁতে রাখে। বিষয়টি এলাকার লোকজনের মধ্যে জানাজানি হয়ে গেলে স্থানীয়রা রামচন্দ্রকুড়া বিজিবি ক্যাম্পে খবর দেয়।

Image

খবর পেয়ে বিজিবি জোয়ানরা ৯মার্চ বিকেলে মাটি খুঁড়ে নিশ্চিত হন এটা একটি বোমা হতে পারে । পরে থানা পুলিশকে খবর দিলে পুলিশ এলাকাটি কর্ডন করে রাখেন এবং সেনাবাহিনীর কাছে সহযোগিতা চান। এ ঘটনায় এলাকায় আতংক দেখা দিলেও প্রশাসন এগিয়ে আসায় তাদের মধ্যে স্বস্তি ফিরে আসে। 

বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর ঘাটাইল ক্যাম্পের ডিসপোজাল ইউনিটের মেজর নাহিদ শারমিনের নেতৃত্বে একটি দল এসে আজ বিকাল ৫টার সময় বোমাটি বিস্ফোরণ ঘটিয়ে নিস্ক্রিয় করেন। বোমাটি ১৯৬৭ সালের তৈরি ও হাই এক্সপ্লোসিভ (এইচ-ই)। ধারণা করা হচ্ছে, বোমাটি ১৯৭১সালের মুক্তিযুদ্ধের সময়ের হতে পারে।

 

Share icon