শেরপুরে পূর্ব বিরোধের জেরে একই পরিবারের ৭জনকে কুপিয়ে জখম

সম্পাদক-প্রকাশকঃ মারুফুর রহমান ফকির
বুধ, 17.11.2021 - 03:20 PM
Share icon
Image

স্টাফ রিপোর্টারঃ শেরপুরের ঝিনাইগাতীতে পূর্ব বিরোধের জের ধরে একই পরিবারের ৭জনকে কুপিয়ে জখম করেছে প্রতিবেশি প্রতিপক্ষরা। ১৩ নভেম্বর শনিবার সকাল সাড়ে ৯টায় উপজেলার মালিঝিকান্দা ইউনিয়নের বাতিয়াগাঁও গ্রামে এই ঘটনা ঘটে।

ক্ষতিগ্রস্ত পরিবার ও মামলার বিবরণী সূত্রে জানা যায়, ভুক্তভোগী শফিকুল ইসলাম গংদের সাথে প্রতিবেশী ভূমিদস্যু রফিকুল বারী ওরফে ছানা (৫৫), রশিদুল বারী ওরফে সোহাগ (৩৫), আঃ সালাম (৬৫), মোঃ হবি মিয়া (৩৫), মোঃ হাবি মিয়া (৪০), রবিউল ইসলাম (৫৫), কালাম মিয়া (৫০), সাগর আলী (২৪), আঃ সামাদ (৪৫), নবী হোসেন (২৩), সবুজ মিয়া (৩০), মিস্টার আলী (৩৫), কাজল মিয়া (২৫), সাইফুল ইসলাম (২০), মোছাঃ আনজু বেগম (২৭) দের সাথে জমি সংক্রান্ত বিষয়াদি নিয়ে দীর্ঘদিন যাবৎ শত্রুতা পোষণ করিয়া আসিতেছে।

ঘটনার দিন বাড়ির সীমানায় গাছ লাগানোকে কেন্দ্র করে, পূর্বশত্রুতার জের ধরে পূর্বপরিকল্পিতভাবে দেশীয় অস্ত্রশস্ত্রে সজ্জিত হইয়া আমাদেরকে প্রাণনাশের উদ্দেশ্যে বসত বাড়িতে প্রবেশ করে তারা। অভিযুক্তরা উত্তেজিত হয়ে উজির আলী (৫৫), শরিফুল ইসলাম (৩৮), সুরুজ আলী (৪৪), শহিদুল ইসলাম (৩২), মোঃ জামান (১৫), উজিলা খাতুন (৭০), শফিকুল ইসলামকে দেশীয় প্রাণনাশক অস্ত্রশস্ত্রে সজ্জিত হইয়া রামদা, ফালা, লোহার শাবল, লাঠি দিয়ে কুপিয়ে ও পিটিয়ে মারাত্মক রক্তাক্ত জখম করে আহত করে। ওই সময় স্থানীয়দের হস্তক্ষেপে তাদের উদ্ধার করে ২৫০ শয্যা শেরপুর জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পরে মঙ্গলবার সকালে হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক তাদের দুইজনেকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার করেন।

ভুক্তভোগী শফিকুল ইসলাম জানান, আমার পরিবারের সকলকে তারা কুপিয়ে মারাত্মকভাবে আহত করেছে। এরপরও তারা বিভিন্নভাবে হুমকি দিচ্ছে। তাদের হুমকিতে হাসপাতাল থেকে বাড়িতে যাব এই সাহস পাচ্ছিনা। থানায় মামলা করেছি কারনে তারা বলেছে আমাদেরকে বিভিন্ন মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানি করবে ও গুম করে ফেলবে। আমরা নিরাপত্তাহীনতায় আছি।

এ ব্যাপারে ভুক্তভোগী শফিকুল ইসলাম বাদী হয়ে ১৫ জনের নাম উল্লেখ করে ঝিনাইগাতী থানায় একটি মামলা করেছেন। ঘটনার পর থেকে অভিযুক্তরা পলাতক আছে।
 
এ ব্যাপারে ঝিনাইগাতী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ ফায়েজুর রহমান জানান, থানায় মামলা হয়েছে, অভিযুক্তদের দ্রুত গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

Share icon