বিদ্যুৎস্পৃষ্টে নিহত পরিবারকে সহায়তা দিলেন শেরপুরে জেলা প্রশাসন

সম্পাদক-প্রকাশকঃ মারুফুর রহমান ফকির
সোম, 18.05.2020 - 05:48 AM
Share icon
Image

স্টাফ রিপোর্টারঃ করোনা ভাইরাসজনিত পরিস্থিতিতে লকডাউনে থাকা শেরপুর শহরে জীবিকার তাগিদে ইজিবাইক নিয়ে এসে লাশ হয়ে ফেরা খোকন মিয়া (২৬) নামে এক চালকের স্ত্রীকে এবার বিধবা ভাতা ও নগদ ২০ হাজার টাকা তুলে দিয়েছে শেরপুর জেলা প্রশাসন।

১৭ মে রবিবার দুপুরে জেলা প্রশাসকের বাসভবনের হলরুমে খোকনের স্ত্রী আঞ্জুয়ারা বেগম ও বাবা আব্দুল হাকিমের হাতে ওই সহায়তা তুলে দেন জেলা প্রশাসক আনার কলি মাহবুব।

এছাড়া তিনি খোকনের স্ত্রীকে ট্রেনিংয়ের ব্যবস্থাসহ একটি সেলাই মেশিন ও তার বাবার বয়স্ক ভাতার কার্ড দ্রুত সময়ে করে দেওয়ার নির্দেশ দেন সংশ্লিষ্টদের।

এসময় জেলা প্রশাসক বলেন, খোকনের মৃত্যু খুবই দুঃখজনক। কারও মৃত্যুর কোন ক্ষতিপূরণ হয় না। তবে জেলা প্রশাসন সবসময় খোকনের পরিবারের পাশে থাকবে।

সেইসাথে তিনি ওই ঘটনায় প্রকৃত দোষীদের খুঁজে বের করতে একটি তদন্ত কমিটি গঠনের নির্দেশ দেন। 

সহায়তা প্রদানকালে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) এবিএম এহছানুল মামুন, শ্রীবরদী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নিলুফা আক্তার, এনডিসি মিজানুর রহমানসহ অন্যান্যরা উপস্থিত ছিলেন। 

উল্লেখ্য, ১৫ মে শুক্রবার ইজিবাইক চালক খোকন শহরের খোয়ারপাড় শাপলা চত্ত্বর এলাকায় যাত্রী পরিবহন করতে গেলে লকডাউন থাকায় কর্তব্যরত পুলিশ ইজিবাইক নিয়ন্ত্রণ করতে অন্যান্য ইজিবাইকের মত খোকনের ইজিবাইকের পেছনের সিট খুলে নেয়।

এক পর্যায়ে খোকনের ইজিবাইকের সিটটি শাপলা চত্ত্বর ফোয়ারার পানিতে ফেলে দিলে ওই সিট তুলতে গিয়ে বিদ্যুতায়িত হয়ে মারা যায় খোকন।

 

Share icon