Image

১৪ বছর বয়সী স্কুল শিক্ষার্থী মনিকা (ছদ্দনাম)। দরিদ্র পরিবারের এই মেয়ে স্থানীয় উচ্চ বিদ্যালয়ের পড়ালেখা করতো। বিয়ের কয়েকমাস যেতে না যেতেই গর্ভ ধারন করলো। সেই বিয়ের নিবন্ধন করলো স্থানীয় এক ভূয়া কাজী। মেহেদী রং না মুছতেই স্বামী ও তার পরিবারের নির্যাতনে বরণ করতে হলো মৃত্যু। অন্যদিকে ১৩ বছর বয়সী শান্তার (ছদ্দনাম) বিয়ে হয় পার্শবর্তী গ্রামে। সংসারের দ্বায়িত্ব কর্তব্য সঠিক ভাবে না বুঝায় সৃষ্টি হলো পারিবারিক কলহ। অবশেষে বিবাহ বিচ্ছেদ। এখানেও সেই ভূয়া কাজীর নিবন্ধন। আইনের আশ্রয়ের জন্য কাবিন নামা না পেয়ে করতে হলো নিজের স্বামীর বিরুদ্ধে ধর্ষণ মামলা। ঘটনা গুলো শেরপুরের শ্রীবরদী উপজেলার খড়িয়াকাজীরচর ইউনি